--- বিজ্ঞাপন ---

বাংলা ভাষার বিকৃতি এড়াতে তরুণ প্রজন্মকেই এগিয়ে আসতে হবে: চুয়েট ভিসি

0

নিউজ ডেস্ক: চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযু্িক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) -এর মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেছেন, মাতৃভাষার জন্য রক্তদান পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। কিন্তু ভাষা আন্দোলনের ৭১ বছর পরেও দেশের সর্বস্তরে এখনো বাংলার প্রচলন সম্ভব হয়নি। বাংলা ভাষার প্রতি দরদ এখন কেবলি আনুষ্ঠানিকতা নির্ভর হয়ে পড়েছে। সভা-সেমিনার ও টকশো’র আলোচনায় আমরা ভাষা নিয়ে যা বলি কর্মে তার প্রতিফলন ঘটে না। এটা বাঙালি হিসেবে আমাদের জন্য খুবই দুঃখজনক। বর্তমানে বাংলা-ইংরেজির মিশ্রণে তৈরি সংকর ভাষা বাংলা ভাষার মর্যাদাকে ম্লাণ করে দিচ্ছে। সেজন্য বাংলা ভাষার বিকৃতি এড়াতে তরুণ প্রজন্মকেই এগিয়ে আসতে হবে। তিনি অদ্য ২১ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার), ২০১৯ খ্রি. চুয়েট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০১৯ উদযাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

চুয়েট ভিসি আরো বলেন, সম্প্রতি উচ্চশিক্ষাক্ষেত্রে বাংলার প্রচলনের দাবিটা বেশ জোরালো হয়েছে। আমরা চুয়েটে সেটার স্বল্প পরিসরে হলেও প্রচলন ঘটাতে চাই। আমাদের শিক্ষকদের বিভিন্ন গবেষণা পেপার ও এ্যাবস্ট্র্যাক্টগুলো যেন অন্তত বাংলায় লেখা শুরু করা হয়। সেজন্য আপনাদের সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

চুয়েটে জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির সভাপতি এবং স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মোঃ সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. রনজিৎ কুমার সূত্রধর, পুরকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড.মোঃ আব্দুর রহমান ভূঁইয়া, তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. কৌশিক দেব, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় প্রধানগণের পক্ষে যন্ত্রকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দীন আহম্মদ, প্রভোস্টগণের পক্ষে শহীদ তারেক হুদা হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুর রশীদ, শিক্ষক সমিতির পক্ষে সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সামসুল আরেফীন, কর্মকর্তা সমিতির পক্ষে সভাপতি প্রকৌশলী সৈয়দ মোহাম্মদ ইকরাম, কর্মচারী সমিতির পক্ষে সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য এবং শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন লাবিব ওয়াহিদ, অন্তর মাহমুদ ও ফাহিম শাকিল। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. কাজী দেলোয়ার হোসেন, মানবিক বিভাগের প্রভাষক জনাবা নাহিদা সুলতানা ও সহকারী রেজিস্ট্রার (সমন্বয়) জনাব মোহাম্মদ ফজলুর রহমান। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও বিভিন্ন বিভাগের বিপুল সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করেন।

এর আগে দিবসটি উপলক্ষ্যে দিনের প্রথম প্রহরে সকাল সাড়ে ৭টায় ক্যাম্পাসের উত্তর গোল চত্ত্বর হতে প্রভাত ফেরির মাধ্যমে দিনব্যাপী কর্মসূচীর শুরু হয়। এতে নেতৃত্ব দেন মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। এরপর চুয়েট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। এরপর একে একে চুয়েটের বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠন, চুয়েট স্কুল এন্ড কলেজের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে মহান ভাষা শহীদদের স্মরণে দোয়া ও মুনাজাত করা হয়। এছাড়া দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালা মধ্যে ছিল- সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, কবিতা আবৃত্তি, উপস্থিত বক্তৃতা, দেশাত্মবোধক গান প্রভৃতি।

আপনার মতামত দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.